লালমনিরহাটে সেনাবাহিনীর কৃষক বান্ধব ভেটেরিনারি ক্যাম্পেইন

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী রংপুর অঞ্চলের উদ্দ্যোগে লালমনিরহাট মিলিটারী ফার্ম বিনামূল্যে ভেটেরিনারি সেবা ক্যাম্পেইন পরিচালিত করেছে।

বুধবার (২৭ডিসেম্বর) বেলা ১২টায় মিলিটারি ফার্ম লালমনিরহাটের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ও জেলা প্রাণীসম্পদ বিভাগের সহযোগীতায় শহরের বত্রিশ হাজারী প্রাইমারি স্কুল মাঠে এ ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হয়।

ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করেন মিলিটারি ফার্ম লালমনিরহাটের অধিনায়ক কর্ণেল নাজির আমেদ। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মিলিটারি ফার্ম লালমনিরহাটের উপ-অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ তুহিন হাসান পিএসসি, লেঃ মেহেদী হাসান, উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ মকবুল হোসেন, ভেটেরিনারি সার্জন ডাঃ বজলুর রশিদসহ অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

সামাজিক দায়িত্ববোধ থেকে সেনাবাহিনী কর্তৃক রংপুর অঞ্চলে শীতকালীন প্রশিক্ষন কর্মসুচীর পাশাপাশি প্রত্যন্ত অঞ্চলের গবাদিপ্রাণি ও হাঁস-মুরগীকে বিনামুল্যে টিকা ও চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। এই কর্মসুচীর আওতায় গরু ও মহিষের তড়কা (এ্যানথ্রাক্স), ছাগল ও ভেঁড়ার পিপিআর, হাঁসের ডাকপ্লেগ এবং মুরগীর রানীক্ষেত রোগের টিকা প্রদান করা হয়। টিকা প্রদান ছাড়াও গবাদিপ্রাণীকে কৃমিনাশক ঔষধ খাওয়ানোসহ অসুস্থ পশুপাখির চিকিৎসা প্রদান করা হয়। টিকা এবং চিকিৎসা সেবার পাশাপাশি খামারীদের গবাদিপ্রাণী পালন, ব্যবস্থাপনা এবং খামার স্থাপন সংক্রান্ত কারিগরী বিষয়ে পরামর্শ প্রদান করা হয়।

ক্যাম্পেইন বিনামুল্যে গরু ও মহিষের ১৬৮৬টি এ্যানথ্রাক্স, ছাগল ও ভেঁড়ার ৯৮৯টি পিপিআর, হাঁসের ২৫৮৩টি ডাকপ্লেগ এবং মুরগীর ২৪৩৪টি রাণীক্ষেত রোগের টিকা প্রদান করা হয়। এছাড়াও ১২৩৬টি গবাদিপ্রাণীকে কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাওয়ানো হয়।

ক্যাম্পেইনে গরু মোটাতাজাকরন, গবাদিপ্রাণীর পালন ও ব্যবস্থাপনাসহ অন্যান্য কারিগরী বিষয়ে কৃষকদের পরামর্শ প্রদান এবং বিনামুল্যে লিফলেট বিতরন করা হয়।

সেবামূলক এই ক্যাম্পেইরটি খামারীদের মাঝে গবাদিপ্রাণী পালনে উৎসাহ সৃষ্টি করাসহ বেসামরিক পরিমন্ডলে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সার্বিক ভাবমূর্তি উজ্জল করবে বলে জানানো হয়।

Pin It

Comments are closed.