লালমনিরহাটে শিলাবৃষ্টি ও ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডব, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

নিউজ ডেস্ক :: লালমনিরহাটে শুক্রবার দিবাগত রাতে শিলাবৃষ্টি ও ঘূর্ণিঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। রাত ৯টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত চলা তিন ঘণ্টাব্যাপী এ ঝড়ে তিন জন আহত হওয়া সহ কয়েক হাজার ঘরবাড়ি ও গাছপালা নষ্ট হয়েছে। ক্ষতি হয়েছে ধানসহ বিভিন্ন ফসলের।

স্থানীয়সূত্রে জানা যায়, প্রচণ্ড ঘূর্ণিঝড়ে গাছ পড়ে লালমনিরহাট রেলওয়ে কলোনি এলাকায় ৩ জন আহত হয়েছে। এছাড়াও থেমে থেমে চলা শিলাবৃষ্টিতে ধান, ভুট্টাসহ বিভিন্ন ফসল নষ্ট হয়েছে।

প্রচণ্ড বেগে আঘাতহানা ঝড়ে জেলার আদিতমারী, কালীগঞ্জ ও সদর উপজেলার কয়েক হাজার ঘরবাড়ি ভেঙে পড়েছে। উপড়ে গেছে গাছপালা, বিদ্যুতের খুঁটি ও তার। এসব এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে তিস্তার চরাঞ্চলগুলোতে।

আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা ইউপি সদস্য মতি মিয়া জানান, চরাঞ্চলের এমন কোনো বাড়ি নেই ক্ষতি হয়নি। লণ্ডভণ্ড হয়ে পড়েছে চরাঞ্চলের গ্রামগুলো। তবে কি পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে সে বিষয়ে প্রাথমিক জানা যায়নি।

মহিষখোচা ইউপি চেয়ারম্যান মোসাদ্দেক হোসেন চৌধুরী জানান, এ ঝড়ে তার ইউনিয়নে অসংখ্য ঘরবাড়ি নষ্ট হয়েছে। ঝড়ের কারণে গাছ ভেঙে পড়ে লালমিনহাট-বুড়িমারী মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা স্থানীয়দের সহযোগিতায় রাস্তা সচল করার চেষ্টা চালাচ্ছেন।

লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবুল ফয়েজ মো. আলাউদ্দিন খাঁন জানান, ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরুপণ করতে ইউএনওসহ সব দপ্তরকে মোবাইলে বলা হয়েছে। তবে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

Pin It

Comments are closed.