লালমনিরহাটে তিস্তা ও ধরলার ৬৩ চরে যৌথবাহিনীর অভিযান

লালমনিরহাটের তিস্তা ও ধরলার ৬৩টি চরে জঙ্গিদের নিরাপদ আস্তানা রয়েছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী যৌথবাহিনী অভিযান চালায়।

লালমনিরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এন এম নাসিরের নেতৃত্বে এ অভিযান চালানো হয় বলে তিনি নিশ্চিত করেন।

পুলিশের ওই কর্মকর্তা সাংবাদিকদের জানান, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা থেকে জেলার হাতিবান্ধা উপজেলার চর সিন্দুর্না, চর হলদিবাড়ি, চর ডাউয়াবাড়ি এই তিনটি চরে র‌্যাব, বিজিবি ও পুলিশের সমন্বয়ে গঠিত যৌথবাহিনী এ অভিযান চালায়। অভিযান শেষ হয় বেলা ৪টা ২০ মিনিটে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে জঙ্গিরা পালিয়ে যায় বলে জানান জেলা পুলিশের এই শীর্ষ কর্মকর্তা।

জেলা পুলিশের একাধিক সুত্র জানায়, সারাদেশে যখন জঙ্গি বিরোধী অভিযান তুঙ্গে ঠিক সেই সময় নদীর চরবর্তি এলাকা নিরাপদ আশ্রয় হিসেবে বেছে নিয়েছে জঙ্গিরা। লালমনিরহাটের তিস্তা ও ধরলা নদীর প্রায় ৬৩টি চর রয়েছে, এসব চরে আস্তানা গাড়তে পারে এসব সন্ত্রাসীরা। দুর্গম এসব চরে যোগাযোগ না থাকায় খুব সহজেই পুলিশি অভিযান চালানো সম্ভব নয় ভেবে জঙ্গিরা তাদের আস্তানা হিসেবে এসব দুর্গম চর বেছে নিয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

Pin It

Comments are closed.