লালমনিরহাটে এনজিও অফিসে হামলা, চার লাখ টাকা লুট

নিউজ ডেস্ক :: লালমনিরহাট সদর উপজেলার বানভাসা মোড়ে বেসরকারী দারিদ্র বিমোচন প্রতিষ্ঠান পপি এনজিওতে হামলা চালিয়ে শাখা ব্যবস্থাপককে আহত করে সাড়ে ৪ লক্ষ টাকা লুট করেছে দুর্বত্তরা। এব্যাপারে শাখা ব্যবস্থাপক আব্দুর রশিদ বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকালে পপি অফিসে পুর্বের ন্যায দ্বায়িত্বরত মাঠকর্মী অসহায় দুঃস্থ মানুষের মধ্যে লোন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল। এ সময় ওই এনজিও’র সদস্য মোছাঃ রুমি বেগম ৮০ হাজার টাকা দাবি করে। কিন্তু পপি কর্তৃপক্ষ তাকে তার দাবিকৃত টাকা দেয়া সম্ভব নয় মর্মে সাফ জানিয়ে দেয়। পরে রুমি বেগম বিষয়টি তার স্বামীকে জানালে তার স্বামী আবুল কালাম তার সন্ত্রসী বাহিনী এসবি সাগর, আয়নাল, রাকিবসহ ৭/৮ জনের একটি দল লাঠিসোটা, ধারালো অস্ত্র-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আকষ্মিক পপি অফিসে হামলা চালায়।

হামলাকারীরা অফিসের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ছিড়ে ফেলে ও ল্যাপটপসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাংচুর করে। এরপর তারা শাখা ব্যবস্থাপক আব্দুর রশিদ, মাঠকর্মী লিলিফা বেগম ও আরজিনা বেগমের উপর চড়াও হয়ে তাদেরকে বেদম মারপিট করে আহত করে। এক পর্যায়ে হামলাকারীরা মাঠকর্মী লিলিফা বেগম এবং আরজিনা বেগমকে শ্লীলতাহানিও ঘটায়্।

এসময় তারা মাঠ কর্মীদের আনা লোনীদের লোন দেয়ার কালেকশনের সাড়ে চার লক্ষ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। পরে পপি অফিসে চেচামেচি শুনে স্থানীয় লোকজন ছুটে এলে দুর্বত্তরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় আহত শাখা ব্যবস্থাপকসহ মাঠকর্মী লিলিফা ও আরজিনাকে উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে শাখা ব্যবস্থাপক আব্দুর রশিদ বাদী হয়ে লালমনিরহাট সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
দূর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দেয়ায় স্থানীয় সন্ত্রাসী আব্দুল জলিল ক্ষিপ্ত হয়ে আবারও পপি অফিসে হামলা চালাতে গেলে অফিসের লোকজন তাকে আটক করে থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করেন। পরে পুলিশ ওই মামলায় জলিলকে আটক দেখিয়ে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

এ ব্যাপারে পপি অফিসের শাখা ব্যবস্থাপক আব্দুর রশিদ জানান, মোছাঃ রুমি বেগম আমাদের পপি এনজিও’র একজন সদস্য। সে দীর্ঘদিন থেকে ৮০হাজার টাকা লোন দাবি করে আসছিল । মাঠকর্মীদের ভাষ্য মতে, রুমির লোন পরিশোধের বিগত রেকর্ড ভালো নয় বিধায় পপি কর্তৃপক্ষ তাকে তার দাবিকৃত টাকা দেয়া সম্ভব নয় মর্মে জানিয়ে দেয়া হয়। বিষয়টি রুমি তার স্বামীকে জানালে তার স্বামী আবুল কালাম তার দলবলসহ আকষ্মিক পপি অফিসে হামলা চালিয়ে অফিসের সাড়ে লক্ষ টাকা লুট করে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহফুজ আলম জানান, অভিযোগ পেয়েছি, অভিযোগের প্রেক্ষিতে ইতিমধ্যে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকী আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Pin It

Comments are closed.