মোবাইল গেম ও অ্যাপ তৈরিতে তরুণদের প্রশিক্ষণ দেবে সরকার

IMG_২০১৬০৮০৯_০৪২১১৪

 
গেম ও অ্যাপ তৈরিতে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে ‘স্কিল ডেভেলপমেন্ট ফর মোবাইল গেম অ্যান্ড অ্যাপ্লিকেশন’ শীর্ষক ২৮২ কোটি টাকার একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। গত ১৪ জুন প্রধানমন্ত্রী একনেকে প্রকল্পটির অনুমোদন দিয়েছিলেন। এ প্রকল্পের আওতায় বিভাগীয় পর্যায়ে ৭টি মোবাইল অ্যাপস ও গেম ডেভেলপমেন্ট একাডেমি এবং ৩০টি জেলায় স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মোবাইল অ্যাপ ও গেম ল্যাব, অ্যাপ টেস্টিং ল্যাব এবং ট্রেনিং পয়েন্ট স্থাপন করা হবে। এর পাশাপাশি অনলাইন কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স পরীক্ষণ ও বাছাইকরণ, স্টার্টআপ, ভেঞ্চার সংশ্লিষ্ট উদ্যোগ ও কার্যক্রমে সহায়তা করা হবে এই প্রকল্প থেকে। সব মিলিয়ে এই প্রকল্পের মাধ্যমে ৮ হাজার ৭৫০ জন পূর্ণাঙ্গ অ্যাপ ডেভেলপার এবং দুই হাজার ৮০০ জন গেমিং অ্যানিমেটর তৈরি করা হবে।

প্রকল্পটি নিয়ে গত রবিবার বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল মিলনায়তনে এক ব্রিফিংয়ের আয়োজন করা হয়। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদারের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশিদের মেধার কোনো ঘাটতি নেই। শুধু দরকার ছিল সরকারের সহযোগিতা এবং নেতৃত্ব। এরই অংশ হিসেবে গেমিং খাতে বাংলাদেশের অবস্থান নিশ্চিত করতে এই প্রকল্পটির অনুমোদন দিয়েছে সরকার। ২০২১ সাল নাগাদ তথ্যপ্রযুক্তি খাত থেকে যে ৫ বিলিয়ন ডলার আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে, সেখানে মোবাইল গেম এবং অ্যাপ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।’ ২৮২ কোটি টাকার এই প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে ২ হাজার ৮০০ কোটি টাকার গেমিং শিল্প গড়ে তোলা সম্ভব হবে বলেও জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলন শেষে বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বারের সঞ্চালনায় একটি আলোচনা পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ নেন বেসিসের সাবেক সভাপতি শামীম আহসান, বিডিওএসএন-এর সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসানসহ এই খাত সংশ্লিষ্টরা।

Pin It

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।