মোটরসাইকেল কিনে না দেয়ায় বাবা-মা’র গায়ে আগুন দিল কিশোর!

ওয়েব ডেস্ক: মোটরসাইকেল না কিনে দেওয়ায় গায়ে পেট্রোল ঢেলে মা-বাবাকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করল ছেলে। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ফরিদপুরে। ‘গুণধর’ ওই ছেলের নাম হুদা মুগ্ধ (১৭)।

হুদা মুগ্ধ সম্প্রতি ফরিদপুর জেলা স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষায় পাশ করে বাবার কাছে একটি দামি মোটরসাইকেল দাবি করে। ওত দাম দিয়ে মোটরবাইক কিনতে পারবেন না বলে জানিয়ে দেন মুগ্ধর বাবা এটিএম রফিকুল হুদা (৪৮)। মা সিলভিয়া হুদাও ছেলের বেড়ায়া আবদারকে প্রশ্রয় দিতে চাননি।

ছেলে বলে দেয়, এর ফল ভালো হবে না। মা-বাবা স্বপ্নেও ভাবতে পারেননি, তাঁদের সন্তান আসলে তাঁদের সত্যিই হত্যার হুমকি দিয়েছে। গত ১৫ সেপ্টেম্বর দুপুরের ঘটনা। মা-বাবা ঘুমোচ্ছিলেন। সেই সময়ই মুগ্ধ পেট্রোল ঢেলে মা-বাবার গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে রফিকুল হুদার শরীরের বিভিন্ন অংশ, সিলভিয়া হুদার পা কিছুটা পুড়ে যায়। পুড়ে যায় মুগ্ধর নিজের পায়ের কিছু অংশও।

রফিকুল অর্থাত্‍‌ মুগ্ধর বাবা বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। একমাত্র সন্তানের দেওয়া আগুনে পুড়ে গিয়েছে তাঁর শরীরের প্রায় ৫০ শতাংশ।

প্রসঙ্গত, ঈদের দিন রাতে মুগ্ধ ফেসবুকে লেখে, ‘পৃথিবীতে নিজে ভাল থাকতে হলে স্বার্থপর হতে হবে। আর অন্যকে ভাল রাখতে গেলে নিঃস্বার্থ হতে হবে এটাই সত্য।’ তার আগে গত ১৭ অগাস্ট সে লেখে, ‘পরিপূর্ণ তৃপ্তি নিয়ে কুঁড়ে ঘরে থাকাও ভাল, অতৃপ্তি নিয়ে বিরাট অট্টালিকায় থাকার কোন স্বার্থকতা নেই।’

Pin It

Comments are closed.