বিলুপ্ত ছিটমহলে জয় পেতে মরিয়া আ.লীগ-বিএনপি

নিউজ ডেস্ক: লালমনিরহাটের বিলুপ্ত ছিটমহলের অন্তর্ভুক্ত ৩টি উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে আগামীকালের ইউপি নির্বাচনে জয় পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছে আওয়ামী লীগ। থেমে নেই বিএনপি প্রার্থীরাও। চলছে পাড়ায় পাড়ায় গণসংযোগ আর উঠান বৈঠক। প্রার্থীদের পোস্টারে ছেয়ে গেছে পুরো গ্রাম। নতুন বাংলাদেশিদের মাঝে ভোট-উৎসব লক্ষ্যণীয়।

উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতেই ভোটাররা নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে প্রার্থীদের নির্বাচিত করবেন বলে মনে করছেন ক্ষমতাসীন নেতারা।

লালমনিরহাট জেলার ৮টি ইউনিয়নে ২৮ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের ৮ জন, বিএনপির ৭ জন, জাতীয় পার্টির ২ জন, ইসলামী শাসনতন্ত্রের ১ জন, আওয়মী লীগের বিদ্রোহী ৩ জন ও স্বতন্ত্র পদে ৭ জন বলে জানা গেছে।

সরেজমিন লালমনিরহাট জেলার ৮ ইউনিয়ন ঘুরে দেখা গেছে, লালমনিরহাট সদরের কুলাঘাট ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শাহজাহান আলী সরকার (নৌকা) ও বিএনপি মনোনীত বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলীর (ধানের শীষ) মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে।

হাতীবান্ধা উপজেলার গোতামারী ইউনিয়নে বিএনপির-মনোনীত বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল (ধানের শীষ) ও আওয়ামী লীগ-মনোনীত প্রার্থী আবুল কাশেম সাবু (নৌকা) এবং আওয়মী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী মোনাব্বেরুল হক মোনার (মোটরসাইকেল) মধ্যে ত্রিমুখী লড়াই হবে।

পাটগ্রাম উপজেলার ৭ ইউপির মধ্যে- পাটগ্রাম সদর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ প্রার্থী আব্দুল ওহাব প্রধান (নৌকা) ও বিএনপি প্রার্থী মকলেছুর রহমানের (ধানের শীষ) মধ্যে লড়াই হবে।

জগতবেড় ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ প্রার্থী নবিবর রহমান (নৌকা) ও বিএনপি প্রার্থী মোকলেছুর রহমানের (ধানের শীষ) মধ্যে লড়াই হবে। তবে এখানে এগিয়ে আছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী নবিবর রহমান।

কুচলিবাড়ি ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ প্রার্থী হামিদুল হক (নৌকা) ও বিএনপি প্রার্থী শাহনেওয়াজ পারভেজের (ধানের শীষ) মধ্যে ভোট লড়াই হবে।

জোংড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আশরাফ আলী (নৌকা), সতন্ত্র প্রার্থী শাহ মাহমুদুন্নবী শাহিন (মোটরসাইকেল) ও আওয়মী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হুমায়ুন কবীরের (আনারস) মধ্যে ত্রিমুখী লড়াই হবে।

বুড়িমারী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ প্রার্থী তাহাজুল ইসলাম মিঠু (নৌকা) ও আওয়মী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আবু সাইদ নেয়াজ নিশাতের (আনারস) মধ্যে এগিয়ে আছেন আবু সাইদ নেয়াজ নিশাত (আনারস)।

শ্রীরামপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ প্রার্থী আবুল হাসেম (নৌকা) ও বিএনপি প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল করিম প্রধানের (ধানের শীষ) মধ্যে ভোটযুদ্ধ হবে।

লালমনিরহাট জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফজলুল করিম বলেন, জেলার ৩ উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ হবে। ভোটাররা নিরাপদে ভোট দিতে পারবেন। ভোটগ্রহণের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

এ বিষয়ে লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক জানান, জেলার ৮টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের দিন পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি টহল থাকবে।

Pin It

Comments are closed.