পাটগ্রামে বোমা বিস্ফোরণে আ’লীগ নেতাসহ আহত-২

বুধবার সকাল সাড়ে ১১ টায় জেলার পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়নের উফমারা গ্রামে নিজ বাড়িতে পেট্রোল বোমা বানাতে গিয়ে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক রেজওয়ান হোসেন ও তার স্কুল শিক্ষিকা বোন সায়মা তুগনুম কুহেলী(২৮) আহত হয়েছে। গুরুতর আহত আ’লীগ নেতা রেজওয়ান হোসেন(৪৫) কে আশস্কাজনক অবস্থায় প্রথমে পাটগ্রাম স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স ও পরে অবস্তার অবনতি ঘটলে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁর দুই হাত ও মুখমন্ডল অগ্নিদগ্ধ হয়েছে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা যায়। ছোট বোন স্থানীয় পিএন উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা সায়মা তুগনুম কুহেলী(২৮)কে বাড়িতে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। শিক্ষিকা কুহেলীর বাম পা সামান্য পুড়ে গেছে।
রাজনৈতিক সূত্রে জানা যায়, বুড়িমারী ইউনিয়নে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সামনে। এই ইউনিয়নে কয়েকটি সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহল রয়েছে। ছিটমহলবাসিরা ভোটার হতে না পারায় নির্বাচন বিলম্ব ঘটে। এখন সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলের সকলে ভোটার হয়েছে। তাই কোরবানির ঈদের পরপরে পাটগ্রাম উপজেলার ৭টি স্থগিত থাকা ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এই নির্বাচনে সিঙ্গাপুর প্রবাসী বুড়িমারী ইউপি আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ নেওয়াজ নিসাদ সম্ভাব্য ইউপি চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি। তিনি আনুষ্ঠানিক ভাবে আগামীকাল বৃহস্পতিবার বুড়িমারী ইউনিয়নে তার রাজনৈতিক শো ডাউন দিয়ে প্রার্থীতার ঘোষানা দেয়ার কথা রয়েছে।
এদিকে পেট্রোল বোমায় আহত বুড়িমারী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক রেজওয়ান হোসেন তিনিও বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে উৎসাহি। তিনিও আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি। প্রতিপক্ষের রাজনৈতিক শো ডাউনে বাঁধা ও হামলার পরিকল্পনা হিসেবে পেট্রোল বোমা তৈরী করা ছিল বলে প্রচার রয়েছে ও গোয়েন্দা সূত্রগুলো নিশ্চিত হয়েছে। তবে অপর একটি সূত্র দাবি করেছে, প্রতিপক্ষ রাজনৈতিক শো ডাউন দেয়ার সময় বাড়ি ঘরে হামলা করতে পারে। এমন খবর প্রচার ছিল। তাই নিজেদের শক্তি বৃদ্ধি ও প্রতিপক্ষের হামলা ঠেঁকাতে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক রেজওয়ান হোসেন পেট্রোল বোমা তৈরী করে মজুদ করছিল। কিন্তু বিধিবাম নিজের হাতে তৈরী বোমা অসাবধানতায় বিস্ফোরণ ঘটে। ছোটবোন বিস্ফোরনের শব্দ শুনে ভাইকে বাঁচাতে গিয়ে আহত হয় বলে জানা যায়।
পেট্রোল বোমায় দুই ভাই বোন আহত হওয়ার খবর প্রচার হলে পুরো পাটগ্রাম উপজেলায় চাঞ্চ্যেলের সৃষ্টি হয়েছে। বুড়িমারী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক রেজওয়ান হোসেনের পরিবারের পক্ষে দাবি করা হচ্ছে রান্না ঘরের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ঘটে এই দূর্ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু এই যুক্তির সমর্থনে ঘটনাস্থলে পুলিশ ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থারা তাৎক্ষনিক কোন প্রমান দিতে পারেনি। রান্না ঘরে বিস্ফোরনের কোন চিহ্ন ছিল না। পুলিশ গোয়েন্দা সূত্রে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। পাটগ্রাম থানার ওসি (তদন্ত) মাহফুজ আনম জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

সূত্র: জনকন্ঠ অনলাইন

Pin It

Comments are closed.