পাটগ্রামে উচ্ছেদ অভিযানে বাধা, চার জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

নিউজ ডেস্ক :: লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় সড়ক ও জনপদের (সওজ) উচ্ছেদ অভিযানে বাধা দেয়ার অভিযোগে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রাশেদুল ইসলাম ও তার তিন ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) রাতে পাটগ্রাম থানায় মামলাটি দায়ের করেন সওজের ঢাকা অঞ্চলের ‘স্টেট অ্যান্ড ল’ বিভাগে কর্মরত সার্ভেয়ার সাইফুল ইসলাম।

মামলার অপর আসামিরা হলেন-উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রাশেদুল ইসলামের ভাই ওয়াজেদুল ইসলাম, জাহেদুল ইসলাম ও সাদেকুল ইসলাম। তারা পাটগ্রাম কলেজ মোড় এলাকার মৃত আব্দুল জব্বারের ছেলে।

মামলার বিবরণ ও পুলিশ জানায়, সোমবার (৪ ডিসেম্বর) বিকেলে সওজের রংপুর জোনের অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা ঢাকা বিভাগে কর্মরত সওজের এস্টেট অ্যান্ড আইন কর্মকর্তা (উপসচিব) মাহবুবুর রহমানের নেতৃত্বে পাটগ্রাম কলেজ গেট থেকে আন্তঃজেলা বাইপাস সড়কের দুইধারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ উচ্ছেদ অভিযানে পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূর কুতুবুল আলম, সওজের লালমনিরহাট নির্বাহী প্রকৌশলী সাজেদুর রহমান, সহকারী পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ও পাটগ্রাম পৌরসভার মেয়র শমসের আলী উপস্থিত ছিলেন।

একপর্যায়ে বাইপাস সড়কের আব্দুল আজিজের বাড়ির সামনে সওজের সার্ভেয়ার সাইফুল ইসলামের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় ‍এবং সরকারি কাজে বাধা দেয় আসামিরা।

এ ঘটনায় সার্ভেয়ার সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে উপজেলা যুবলীগ সভাপতি রাশেদুল ইসলাম ও তার তিন ভাইয়ের বিরুদ্ধে পাটগ্রাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

পাটগ্রাম উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি রাশেদুল ইসলাম জানান, অনেকের বাড়ি-ঘর ভেঙে দিয়েছে সওজের লোকজন। সেখানে কারা কাকে হামলা করেছে সেটা তার অজানা হলেও হয়রানি করার জন্য একটি পক্ষ ষড়যন্ত্রমূলকভাবে তাকে এবং তার অপর তিন ভাইয়ের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করেছে। বিষয়টি আইনগতভাবে মোকাবেলা করা হবে বলেও জানান তিনি।

পাটগ্রাম থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অবনি শংকর কর মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূর কুতুবুল আলম বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

Pin It

Comments are closed.