‘খালেদা কেক কাটেননি বন্যার কারণে, বঙ্গবন্ধুকে সম্মান দেখিয়ে নয়’

বঙ্গবন্ধুর প্রতি সম্মান দেখিয়ে নয়, দেশে বন্যার কারণে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবার ১৫ আগস্টে জন্মদিনের কেক কাটেননি বলে মন্তব্য করেছেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম।

বৃহস্পতিবার দুপুরে মতিঝিলে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ১৫ আগস্ট কেক কাটা বন্ধ রাখেননি। আগস্ট মাস জাতীয় শোকের মাস। ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পরিবারের সদস্যদের হত্যা করা হয়েছে। এই দিন জাতীয় শোক দিবস। বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে খালেদা জিয়া যদি তার জন্মদিনের কেক কাটা বন্ধ রাখতেন, তাহলে বেগম জিয়া আরও সম্মান পেতেন। কিন্তু বিএনপি চেয়ারপারসন তা করেননি।’

তিনি বলেন, ‘দেশে ভয়াবহ সংকট ও বন্যাদুর্গত পরিস্থিতির কারণে বিএনপি চেয়ারপারসন জন্মদিনের কেক কাটা বন্ধ রেখেছেন। বঙ্গবন্ধুর প্রতি সম্মান দেখিয়ে নয়।’

বিগত সাতদিন ধরে উত্তরাঞ্চলের গাইবান্ধা, সিরাজগঞ্জ, কুড়িগ্রামের রৌমারী, রাজীবপুর, জামালপুরের সরিষাবাড়ির জেলার বন্যাদুর্গত এলাকায় ঘুরে ঘুরে মানুষের মধ্যে খাবার বিতরণ করেন কাদের সিদ্দিকী। তিনি খাবারও খেয়েছেন বন্যার্তদের সঙ্গে। উত্তরাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতি জানাতেই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।

তিনি বলেন, বন্যাদুর্গত এলাকায় বন্যার্তদের মাঝে সরকারি ত্রাণ বিতরণ খুবই অপ্রতুল। বন্যাকবলিত মানুষের খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে না। এজন্য সরকারের ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রীকে অবিলম্বে পদত্যাগ করা উচিত।

মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ানোর দাবি জানিয়ে কাদের সিদ্দিকী বলেন, বর্তমান সরকার মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সরকার। তাই মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক ভাতা ১০ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫০ হাজার টাকা করা হোক।

সংবাদ সম্মেলনে ছিলেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান খোকা বীরপ্রতীক, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম দেলোয়ার, মাহবুবুর রহমান পারভেজ, অ্যাডভোকেট মাহবুব হাসান রানা, ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি রিফাতুল ইসলাম দীপ, সাধারণ সম্পাদক কাওসার জামান খান প্রমুখ।-সমকাল

Pin It

Comments are closed.