কৃষিঋণের নামে রংপুরে অর্ধকোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

রংপুরের তারাগঞ্জের কৃষকদের জাতীয় পরিচয়পত্র ও ছবি সংগ্রহ করে একটি সংঘবদ্ধ প্রতারকচক্র নীলফামারীর সৈয়দপুর শাখার উত্তরা ব্যাংক থেকে অর্ধকোটি টাকা কৃষিঋণ তুলে আত্মসাৎ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। কৃষকদের নামে ব্যাংক থেকে ঋণ পরিশোধের নোটিশ যাওয়ার পর এ বিষয়টি ফাঁস হয়। উক্ত নোটিশে শতাধিক কৃষক ৫০ হাজার টাকা করে কৃষিঋণ নিয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়, যা এখন সুদে-আসলে ৭০-৭২ হাজার টাকা হয়েছে।

কৃষকদের অভিযোগ, একটি সংঘবদ্ধ প্রতারকচক্র সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্মকর্তার যোগসাজশে কৃষকদের ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি ও ছবি সংগ্রহ করে এই টাকা উত্তোলন করেন। তাঁরা বিষয়টি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানসহ একাধিক ব্যক্তিকে জানিয়েছেন বলে জানান তারা।

অর্ধকোটি টাকা কৃষিঋণ বিতরণ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সৈয়দপুর শাখা উত্তরা ব্যাংকের উপব্যবস্থাপক কামরুজ্জামান বলেন, ‘ব্যাংকে এ ঘটনা ঘটেছে আমি এখানে যোগদানের অনেক আগে। আমি চার মাস হলো এখানে এসেছি। তাই বিষয়টি ভালো জানি না।’

তিনি আরও বলেন, ২০১১-১২ সালে তারাগঞ্জ উপজেলায় বেশ কিছু কৃষককে কৃষিঋণ দেওয়া হয়েছিল, যা পরিশোধে নোটিশ দেওয়া হয়েছে। নোটিশ পাওয়ার পর ওই কৃষকেরা জানান, তারা কৃষিঋণ নেননি। কৃষকদের লিখিত অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এখন জামিনদার শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

এ ব্যাপারে তারাগঞ্জের কুর্শা ইউপি চেয়ারম্যান আফজালুল হক বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর এ নিয়ে কয়েক দফা বৈঠক হয়েছে। এই কৃষিঋণ গ্রহণকারীদের জামিনদার (গ্যারান্টার) কে, তা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।

Pin It

Comments are closed.