অবৈধ ও অরক্ষিত রেল ক্রসিং বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন

জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না :: সারাদেশে অবৈধ ও অরক্ষিত রেল ক্রসিং বন্ধ, বৈধ রেল ক্রসিং-এ গেট কিপার নিয়োগ ও নুর হোসেন শরিফ স্মৃতি স্তম্ভ নির্মানসহ ৪ দফা দাবীতে লালমনিরহাটে মানববন্ধন ও রেলওয়ে মহাপরিচালকের নিকট স্বারকলিপি পেশ করা হয়েছে।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় বাংলাদেশ রেলওয়ে শ্রমিক-কর্মচারী পোষ্য পরিষদ লালমনিরহাট জেলা শাখার আয়োজনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। রেলওয়ে শ্রমিক-কর্মচারী পোষ্য পরিষদ জেলা শাখার সভাপতি মফিজুর রহমান বাবুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, রেলওয়ে শ্রমিক-কর্মচারী পোষ্য পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মনিরুজ্জামান মনির, বিভাগীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক এম এ হান্নান, লালমনিরহাট জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক আসাদুজ্জামান লিমন, সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম রাজা, প্রচার সম্পাদক নাজমুল ইসলাম নাজু, সদস্য জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না ও সদ্য ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত নুর হোসেনের পত্নী রহিমা বেগম প্রমূখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ রেলওয়ে বিভাগীয় ম্যানেজার (ডিআরএম) এর মাধ্যমে রেলওয়ে মহাপরিচালকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, আমরা বাংলাদেশ রেলওয়েতে কর্মরত, মৃত্যুজনিত ও অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক কর্মচারীর সন্তান। গত ২৪ নভেম্বর গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বক্তারপুর রেলক্রসিংয়ে বিদ্যুতের খুটিবাহী ট্রাকের সাথে সংঘর্ষে লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনের সহকারী চালক নুর হোসেন শরিফ প্রান হারায়। ইতঃপূর্বে ওই স্থানে সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেন দুঘটনায় ৩জন, কলকাতাগামী মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন দুঘটনায় ৫জনের প্রানহানী ঘটে।

শুধু গাজীপুরেই নয় সারা দেশে অবৈধ ও অরক্ষিত রেলক্রসিং এ কিছু দিন পর পর নুর হোসেন শরিফ ভাইয়ের মতো কেড়ে নিচ্ছে তাজা প্রান। একটি দুর্ঘটনার পরেই রেলকর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করলে হয়তো এরকম দুর্ঘটনার পূনরাবৃত্তি ঘটতো না। এরপরেও রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় কোন ব্যবস্থা গ্রহন না করায় অবৈধ ও অরক্ষিত রেল ক্রসিং গুলো আরও বিপদজনক হয়ে উঠছে। ট্রেন চালকরা জীবনের ঝুকি নিয়ে তাদের দায়িত্ব পালন করছেন।

বক্তারা কর্তব্যরত অবস্থায় মৃত্যুবরনকারী শ্রমিক-কর্মচারীর সন্তানদের রেলওয়েতে সরাসরি নিয়োগের নিয়ম থাকলেও তা খুব দ্রুত এর বাস্তবায়ন দাবী করেন।

মানববন্ধন শেষে নেতৃবৃন্দরা সারাদেশে অবৈধ অরক্ষিত রেল ক্রসিং বন্ধ, বৈধ রেল ক্রসিং-এ গেট কিপার নিয়োগ ও নুর হোসেন শরিফ স্মৃতি স্তম্ভ নির্মানসহ ৪ দফা দাবী সম্বলিত একটি স্বারকলিপি রেলওয়ে বিভাগীয় ম্যানেজার (ডিআরএম) লালমনিরহাটের মাধ্যমে রেলওয়ের মহাপরিচালকের নিকট পেশ করেন।

Pin It

Comments are closed.